ঢাকা, শনিবার ১০ই ডিসেম্বর ২০২২ , বাংলা - 

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে

স্টাফ রিপোর্টার ।।ঢাকাপ্রেস২৪.কম

2022-11-19
তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই নিবার্চন হবে সিলেটে বিভাগীয় গণসমাবেশে ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।সমাবেশে উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, গণতন্ত্র ফিরে পেতে আপনারা নতুন যুদ্ধ শুরু করেছেন, এই যুদ্ধ গণতন্ত্র ফিরে পাওয়ার যুদ্ধ।শনিবার (১৯ নভেম্বর) সিলেটের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে বিভাগীয় গণসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব।এ দিন বিকেল সাড়ে ৪টায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা দিতে মঞ্চে ওঠেন মির্জা ফখরুল। প্রায় ২৩ মিনিটের বক্তব্যে তিনি বলেন, সিলেটের ইতিহাস যুদ্ধজয়ের ইতিহাস। এই যুদ্ধে অবশ্যই আমরা জয়লাভ করবো। হযরত শাহজালাল পূণ্যভূমিতে অন্যায় জুলুমের বিরুদ্ধে জয়লাভ করেছিলেন।

 

সরকারের বিরুদ্ধে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার যুদ্ধে আমরা জয়লাভ করবো উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, সাইফুর রহমান অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য যুদ্ধ শুরু করেছিলেন। এই সরকার বাংলাদেশকে আবার একটি তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত করেছে।

 

তিনি আরও বলেন, সরকার ১০ টাকা দরে চাল খাওয়াবে বলে এখন ৭০/৮০ টাকায় চাল খাওয়াচ্ছে। চিনির দাম বেড়েছে, শাক-সবজি, ডিমের দাম বেড়েছে। একজন কৃষক-শ্রমিক তার ছেলের মুখে ডিম তুলে দিতে পারছে না। এই সরকার এদেশের প্রত্যেক তরুণের স্বপ্নকে ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে। বাংলাদেশের তিন কোটি মানুষ এখন বেকার। তাই প্রত্যেক তরুণ, যুবকের স্বপ্ন দেশকে গড়ে তুলবে। ভোট চুরি করে মানুষের স্বপ্নকে ভেঙে দেওয়ার জন্য শেখ হাসিনার বিচার হবে জনতার আদালতে।

 

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার আবারও মামলা-হামলার খেলা শুরু করেছে। গায়েবি মামলার আসামি করা হচ্ছে। হবিগঞ্জের লাখাইয়ে পুলিশ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ মিলে নেতাকর্মীদের ওপর মামলা দিয়েছে। এই অত্যাচার জুলুম বন্ধ করতে হবে। জনগণের অধিকার আদায় করে নিতে হবে। আমরা দেশে শান্তি চাই। এক দফা এক দাবি, এই সরকারের পদত্যাগ।

 

প্রধান বক্তার বক্তব্যে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, পোশাকে অ-পোশাকে প্রশাসন বাস, ট্রাক, যানবাহন বন্ধ করে দেশের কত কোটি টাকা ক্ষতি করেছে, তার হিসাব জনগণকে দিতে হবে। দেশের কোষাগার থেকে কত কোটি টাকা খরচ করে নিজেদের কাজে খরচ করেছেন, তার হিসাব দিতে হবে।

 

তিনি বলেন, আজকে দেশে গণতন্ত্র ও ইলিয়াস আলীর অবস্থা একই। আজকে ইলিয়াস আলীও নাই,  গণতন্ত্রও নাই। আমরা ইলিয়াস আলীসহ গুম হওয়া নেতৃবৃন্দকে খুঁজছি। আমরা গণতন্ত্রও ফিরিয়ে আনবো, ইলিয়াস আলীকেও ফিরিয়ে আনবো। এই সরকারকে ক্ষমতায় রাখা যায় না। কারণ এই সরকার জনগণের না।

 

 

 

জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেন, সারা দেশে সরকারের জুলুম, হামলা-মামলা চলছে। আপনাদের হামলা-মামলা চলবে না।  আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে গণতন্ত্র কায়েম করবো। বিএনপি অন্যায়কে স্থান দেয় না। ভোটাধিকার আবার ফিরিয়ে আনতে এই অন্যায়ের পরির্তন করতে হবে, যেভাবে হযরত শাহজালাল করেছিলেন। জনগণের ক্ষমতা জনগণের হাতে ফিরিয়ে দেবো।

 

সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ইমরান আহমদ ও মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মিফতাহ সিদ্দিকীর যৌথ পরিচালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ন মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্থায়ী কমিটির সদস্য ডা. জাহিদ হোসেন। এছাড়াও বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের কেন্দ্রীয় ও জেলা পর্যায়ের নেতারা সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।