ঢাকা, বুধবার ২৫শে নভেম্বর ২০২০ , বাংলা - 

ছাদ থেকে ফেলে কিশোরীকে হত্যার চেষ্টা!

স্টাফরিপোর্টার।।ঢাকাপ্রেস২৪.কম

সোমবার ২রা নভেম্বর ২০২০ সকাল ১১:১৫:২৫

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ১৫ বছরের এক কিশোরীকে ছাদ থেকে ফেলে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই ভবনের নিচের মুদি দোকানি রুবেল (২৫), ভাড়াটিয়া অপু (২২ ) ও অপুর বাবা হাসানকে অভিযুক্ত করে মামলা করেছে ভুক্তভোগীর বড় বোন।

পুলিশ জানায়, বন্দর উপজেলার মদনপুর ইউপির কেওঢালা বাগদোবাড়িয়া গ্রামের একটি তিনতলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় ওই কিশোরীর বড় বোন ভাড়া থাকেন। ১৪ অক্টোবর বড় বোনের বাসায় বেড়াতে আসার পর থেকে কিশোরীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলো রুবেল ও অপু। 

এতে রাজি না হওয়ায় গেলো ৩১ অক্টোবর রাতে কিশোরীকে জোর করে ধরে ছাদে নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। না পেরে তিন তলার ছাদ থেকে ফেলে দেয় কিশোরীকে। কিশোরীর চিৎকারে তার স্বজনসহ আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। বর্তমানে সে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি আছে।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফখরুদ্দীন ভূঁইয়া জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের বড় বোন বাদী হয়ে রুবেল, অপু ও ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার অভিযোগে অপুর বাবা হাসানকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ একাধিক স্থানে অভিযান চালিয়েছে।

এ মামলার তদন্তের দায়িত্বে থাকা ইন্সপেক্টর শফিকুর রহমান আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯ টায় জানান, পুলিশের টিম এখনও অভিযানে আছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে।