ঢাকা, শুক্রবার ১৩ই ডিসেম্বর ২০১৯ , বাংলা - 

শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত:পলাশ

ষ্টাফরিপোর্টার।।ঢাকাপ্রেস২৪.কম

রবিবার ১৭ই নভেম্বর ২০১৯ সকাল ০৯:১০:৩৩

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে যুবলীগের ৪৭তম প্রতিষ্ঠা  বার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে। শুক্রবার  ১৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় উপজেলার  মালখানগর ইউনিয়ন যুবলীগের আয়োজনে মালখানগর কলেজ আঙিনায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী  উদযাপনের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। মালখানাগড় ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক  আহসানুল ইসলাম আমিনের সঞ্চালনায় ও মালখানগর ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাজী  মকবুল হোসেন আনু সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে  আমন্ত্রিত অতিথী হিসেবে  উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান পলাশ।

এসময়  অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথী মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পলাশ বলেন, আমরা  রাজনীতি করি নিজেদের অবস্থান পরিবর্তন করার জন্য, কিভাবে জুলুম করে নিজের  প্রভাব প্রতিত্তির বিস্তার করা যায়। কিন্তু এটা কোন রাজনৈতিক শিষ্টাচারের  মধ্যে পড়ে না, রাজনৈতিক নেতা মানে জনগনের সেবক আর জনগনের সেবকের দায়িত্ব  হলো জনগণের সেবা করা, নিজের এলাকার পথঘাট বিনির্মান করা দেশের মানুষের সুখে  দুঃখের সাথী হওয়া, স্কুল, কলেজ,মসজি, মাদ্রাসা বিভিন্ন সামাজিক কর্মকানডে  নিজেকে সংপৃক্ত করা,      অথচ আমরা সামান্য পদ পদবী পেয়ে নিজেকে মনে "করি  মুই কি হইছিরে " জন নেএী শেখ হাসিনা শুদ্ধি অভিজানের মধ্যে দিয়ে দুষ্ট  রাজনৈতিক নেতাদের বিরুদ্ধে যেমন ব্যাবস্থা নিয়েছেন, তেমনি আমাদের মত  ত্যাগী নেতাদের রাজনৈতিক পথ সুগম করে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু যেমন পাকিস্তানের  হাত হতে বাঙালি জাতিকে স্বাধীন করেছেন ঠিক তেমনি শেখ হাসিনা আমাদের সৈরাচার  থেকে মুক্তি করে সুখী সমৃদ্ধি একটি বাংলাদেশ গঠন করেছেন,। বিশ্ব দরবারে  বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। শেখ হাসিনা আজ বিচক্ষন রাজনৈতিক নেতা,  বিশশের রাস্ট্র প্রধানদের মধ্যে ২য় প্রধান রাস্ট্র নায়ক, তাই শেখ হাসিনা  বাংলাদেশের অভিভাবক যে কোন বিষয় যে কোন সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার একমাত্র  শেখ হাসিনার,। তাই পলাশ বলেন শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত ই চুড়ান্ত।

বিশেষ  অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক  শামসুল হক,  মালখানগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সানজিদা আক্তার জোসনা,  উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক কাজী নজরুল ইসলাম পিন্টু, সাবেক  ছাত্রলীগ নেতা  সুবীর চক্রবর্তী, মালখানগর  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আনিসুর রহমান মৃধা, সাধারণ সম্পাদক মাসুদ খান,  উপজেলা যুবলীগের আহবাক সদস্য সাইফুল ইসলাম দিপু, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের  সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মীর মোশারফ হোসেন  সুমন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক রনি চৌধুরী, সাবেক  বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা বাবু,  মালখানগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ  সভাপতি শফিকুর রহমান তমাল, সাধারণ সম্পাদক জাহিদ জুবায়ের মামুন সহ  স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী  অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।