ঢাকা, সোমবার ১৭ই মে ২০২১ , বাংলা - 

খাবার পানি প্রকল্প 'প্রবাহ’উদ্বোধন বীর বাহাদুরের

জেলা সংবাদদাতা।। ঢাকাপ্রেস২৪.কম

2021-04-04
খাবার পানি প্রকল্প 'প্রবাহ’উদ্বোধন বীর বাহাদুরের

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের লাঙ্গিপাড়াতে নতুন পানি বিশুদ্ধকরণ প্ল্যান্ট স্থাপন করেছে নিরাপদ খাবার পানির প্রকল্প ‘প্রবাহ’। শনিবার ৩ এপ্রিল, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং ‘প্রবাহ’র এই প্ল্যান্টের উদ্বোধন করেন। নতুন এই প্ল্যান্ট দ্বারা প্রতিদিন ৫ হাজার লিটার পানি পরিশোধন করা সম্ভব, প্রায় ২০০ থেকে ৩০০ পরিবার উপকৃত হবে এবং প্রতিদিন অত্র এলাকার পনের’শ থেকে দুই হাজার মানুষ তাদের খাবার পানির চাহিদা পূরণ করতে পারবে।

এই অঞ্চলে পাহাড়ি নদী থাকা সত্ত্বেও বছরের বেশিরভাগ সময়ই নিরাপদ খাবার পানির ব্যাপক সংকটে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে ও শীতকালে এই দুর্ভোগ বহুগুণে বৃদ্ধি পায় । বর্ষার সময় নদীর পানিতে কাদামাটি এমন ভাবে মিশে যায়, যার ফলে তা সম্পূর্ণভাবে খাওয়ার, ব্যবহারের, এমন কি পরিশোধন করারও অযোগ্য হয়ে যায়। অপরদিকে শীতকালে এলাকার নদী, ছড়া ইত্যাদির পানির স্তর অত্যন্ত  নিচে নেমে আসে; ফলে মারাত্মকভাবে পানির অভাব  দেখা দেয়। বান্দরবানের লাঙ্গিপাড়াতে জলবায়ু ও ভূতাত্ত্বিক জটিলতার বিবেচনায় একটি বিশেষ ও   ব্যতিক্রমধর্মী পদ্ধতিতে  ‘প্রবাহ’-র নিরাপদ খাবার পানির প্ল্যান্টটি তৈরি করা হয়েছে যার ফলে সারাবছর ধরে নিরাপদ খাবার পানি নিশ্চিত করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাননীয় মন্ত্রী  বীর বাহাদুর উশৈসিং নিরাপদ খাবার পানির প্ল্যান্ট স্থাপনের জন্যে 'প্রবাহ' প্রকল্পকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি সুস্বাস্থ্যের জন্য নিরাপদ খাবার পানির উপর গুরুত্বারোপ করে এলাকার সাধারণ মানুষকে এই প্ল্যান্টের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নেয়ার আহবান করেন। ভবিষ্যতে পাহাড়ি অঞ্চলের মানুষের জন্যে 'প্রবাহ' পকল্পের আওতা বৃদ্ধির প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

এই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএটি বাংলাদেশের হেড অফ লীফ অপারেশন্স জনাব জহুরুল হক সরকার, হেড অফ এক্সটার্নাল এফেয়ার্স জনাব শেখ শাবাব আহমেদ, সিনিয়র সাস্টেইনেবিলিটি এফেয়ার্স ম্যানেজার জনাব আহমেদ রায়হান আহসান উল্লাহ্ এবং ডিভিশনাল লীফ ম্যানেজার জনাব মামুনুর রশীদ।

পার্বত্য অঞ্চলে এর আগে, ২০২০ সালের জুলাই মাসে বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় স্থাপন করা হয় ‘প্রবাহ’-র পানি শোধনাগার। সেই প্ল্যান্টটির মাধ্যমে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১০ হাজার লিটার বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। যার ফলশ্রুতিতে পাঁচ হাজারেরও বেশি মানুষের নিত্যদিনের খাবার পানির চাহিদা পূরণ হচ্ছে।

বাংলাদেশের আর্সেনিকপ্রবণ এলাকাগুলোর সুপেয় পানির অভাব পূরণে ২০০৯ সালে ‘প্রবাহ’ নিরাপদ খাবার পানির প্রকল্প যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে 'প্রবাহ' সুপেয় পানির সংকট আছে এমন বিভিন্ন এলাকা যেমন পাহাড় ও লবনাক্ত অঞ্চলে কাজ করছে। এই প্রকল্পের আওতায় বিগত ১২ বছরে দেশের ২০টি  জেলায় নতুন প্ল্যান্টসহ ১১০ টি পানি শোধনাগার স্থাপন করা হয়েছে। এতে প্রতিদিন ৫,৬০,০০০ লিটারের বেশি নিরাপদ খাবার পানি পাচ্ছে ২,৭০,০০০ এরও বেশি মানুষ। সবার জন্য সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি-৩) অর্জনে সরকারকে সহায়তা করাই নিরাপদ খাবার পানির প্রকল্প ‘প্রবাহ’র মূল লক্ষ্য।