ঢাকা, বুধবার ১৯ই জানুয়ারি ২০২২ , বাংলা - 

স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার মূলনায়ক বঙ্গবন্ধু

স্টাফ রিপোর্টার।।ঢাকাপ্রেস২৪.কম

2021-08-15
স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার মূলনায়ক বঙ্গবন্ধু

স্বাধীন বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা, অবিসংবাদিত রাজনীতিক, স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার মূলনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাৎ বার্ষিকী আজ। স্বাধীন দেশের জঘন্যতম হত্যাকাণ্ডের বেদনা বিধুর এই দিনে মহাপ্রাণ এই রাষ্ট্রনায়ককে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় স্মরণ করছে সারাদেশের মানুষ। রোববার (১৫ আগস্ট) সকাল থেকে ধানমন্ডি ৩২ নাম্বারের নিজ বাড়িতে নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে প্রাণ হারানো এই নেতাকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাতে তার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নানা রাজনৈতিক, সামাজিক, স্বেচ্ছাসেবী ও পেশাজীবী সংগঠন।শ্রদ্ধা নিবেদন করতে আসা মানুষজন এ সময় নানা ধরনের স্লোগানে বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করেন। নানা কবিতা ও গানে গানে তুলে ধরেন মহান এই নেতার অবদান।

তেমন একজন ‘প্রতিবন্ধী কল্যাণ সমিতি’র সদস্য সাইফুল ইসলাম। তিনি শ্রদ্ধা জানাতে এসে বলেন, “বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হইলে আমরা বাংলাদেশ পাইতাম না। এই নেতারে যারা পরিবারসহ হত্যা করছে তারা মানুষ না। এসব মানুষদের আমি ঘৃণা করি আর আমাগো নেতারে শ্রদ্ধা করি। নেতা বাইচা থাকলে আমরা আরও অনেক আগায়া যাইতে পারতাম। আজকের এই দিনে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাই সব সময়ের মতোই।”

বঙ্গবন্ধুকে ভালোবেসে ব্যক্তিগতভাবে তার প্রতি খালি হাতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে কামড়াঙ্গীরচর থেকে এসেছেন ২৩ বছর বয়সী যুবক মেহদি হাসান আসিফ। তিনি বলেন, “৭ মার্চের ভাষণ শুনলেই আমার কেমন জানি লাগে। এটি শুনতে শুনতেই আমি বঙ্গবন্ধুর ভক্ত হয়ে গেছি। যতোবার তার এই ভাষণ শুনি ততোবারই আমার কাছে নতুন লাগে, শুনতে কখনো বিরক্ত লাগে না। তার এই ভাষণই আমাকে দেশপ্রেমের প্রেরণা দেয়। অথচ এমন একজন নেতাকে সপরিবারে মেরে ফেললো হায়েনারা! যারা মেরেছে তাদের প্রতি ঘৃণা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। ৩২ নাম্বার এই বাড়ির সামনে এসে দাঁড়ালে আমি কেমন জানি অনুভব করি। এই অনুভূতিটা উপলব্ধি করা গেলেও বলা যায় না!”


এছাড়া আরও অনেকেই শেখ মুজিবুর রহমানকে ভালোবেসে শ্রদ্ধা জানাতে এসেছেন। এর আগে শনিবার দিবাগত রাতে জাতীয় শোক দিবসে ধানমন্ডি ৩২ নাম্বারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।